এই মুহূর্তে জেলা

হাওড়ার শালিমারে লরি চালকের দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য,পরিবারের দাবি খুন।


হাওড়া, ১ মে:- রবিবার গভীর রাতে হাওড়ায় শিবপুরের শালিমার এলাকায় পুলিশ এক যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তা থেকে উদ্ধার করে। এরপর তাকে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মৃতের পরিবারের অভিযোগ এটি দুর্ঘটনায় মৃত্যু নয়। এটি খুন। এই ঘটনার তদন্তে নেমে এজেসি বোটানিক্যাল গার্ডেন থানার পুলিশ একজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। পুলিশ সূত্রের খবর, রবিবার গভীর রাতে শালিমার তিন নম্বর গেটের কাছে রাস্তায় ওই যুবককে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। পুলিশ ওই যুবককে উদ্ধার করে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মৃতের নাম মনজিৎ কুমার সিংহ (২৬)। মৃতের বাড়ি শিবপুরের শালিমার এলাকায়। কোনও পুরনো শত্রুতার জেরে খুন নাকি দুর্ঘটনার কারণে যুবকের মৃত্যু হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এর পাশাপাশি ওই এলাকা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হচ্ছে। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পেশায় লরি চালক মনজিৎ রবিবার রাত সাড়ে বারোটা নাগাদ বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় শালিমার পার্কিং এর কাছে ৫-৬ জন দুষ্কৃতি রাস্তায় তাকে ঘিরে ধরে। কিছু বিষয় নিয়ে তাদের সঙ্গে বচসা বাধে। এরপর ওই যুবকরা তাকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। মৃতের ভাইয়ের অভিযোগ দাদা মনজিতকে খুন করা হয়েছে। তবে কি কারণে এই খুন তা এখনও স্পষ্ট নয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখতে দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।