এই মুহূর্তে জেলা

প্রয়াত অধ্যক্ষ স্বামী স্মরনানন্দকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে অগণিত ভক্তের ভিড় বেলুড় মঠে।


হাওড়া, ২৭ মার্চ:- রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের প্রয়াত অধ্যক্ষ স্বামী স্মরণানন্দের নশ্বর দেহ ভক্তদের শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য শায়িত রয়েছে বেলুড় মঠের সাংস্কৃতিক ভবনে। রাত থেকেই তাঁর অগণিত ভক্ত অনুরাগীরা বেলুড় মঠে আসতে শুরু করেন। মালা, শ্বেতপদ্ম নিয়ে সেখানেই তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন তাঁরা। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ রামকৃষ্ণ মিশন সেবা প্রতিষ্ঠান থেকে স্মরণানন্দের দেহ আনা হয় বেলুড় মঠে। বালির বিধায়ক ডা: রাণা চট্টোপাধ্যায় প্রয়াত মহারাজকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। উপস্থিত ছিলেন সব ব্যবস্থাপনা খতিয়ে দেখতে রাতেই বেলুড় মঠে আসেন হাওড়ার নগরপাল প্রবীণ কুমার ত্রিপাঠী। বুধবার সকালে বেলুড় মঠে আসেন বিশিষ্ট আইনজীবী বাম প্রার্থী সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়।

আজ বুধবার রাতেই বেলুড় মঠের গঙ্গাতীরে প্রয়াত মহারাজের অন্তিম সংস্কার হবে বলে বেলুড় মঠ সূত্রে জানা গেছে। প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার রাত ৮-১৪ মিনিটে কলকাতার রামকৃষ্ণ মিশন সেবা প্রতিষ্ঠান হাসপাতালে প্রয়াত হন রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের ষোড়শ অধ্যক্ষ স্বামী স্মরণানন্দ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। গত ২৯ জানুয়ারি থেকে রামকৃষ্ণ মিশন সেবা প্রতিষ্ঠান হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। ৩ মার্চ রাতে স্মরণানন্দের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রাখা হয়। মহারাজের প্রয়াণে সব মহলেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে।