এই মুহূর্তে কলকাতা

অনলাইন গেম, লটারি, ঘোড় দৌড়ির মতো খেলায় বাড়ছে জিএসটির হার বাড়ছে।


কলকাতা, ৭ ডিসেম্বর:- রাজ্যে অনলাইন গেম, লটারি, ঘোড় দৌড়ের মত খেলায় পণ্য পরিষেবা কর জি এস টির হার বাড়ছে। গত জুলাই মাসে জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ ধরনের খেলায় করের হার বেড়ে হচ্ছে ২৮ শতাংশ। এই মর্মে রাজ্য জিএসটি আইনের একটি সংশোধনী বিল আজ সর্বসম্মতি ক্রমে বিধানসভায় গৃহীত হয়েছে। বিলের উপর আলোচনা শেষে জবাবী ভাষণে অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানান, কাউন্সিলের বৈঠকে মূলত পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশের মত কয়েকটি রাজ্যের জোরদার সওয়ালেই নানা ধরনের জুয়া ও অনলাইন গেমে জিএসটির হার বাড়িয়েছে কেন্দ্র। কারণ অনলাইন গেমে তরুণ প্রজন্মের আসক্তি নিয়ে উদ্বিগ্ন রাজ্য সরকার।

অনলাইনে গেমিং-এ ২৮ শতাংশের মতো সর্বোচ্চ হারে জিএসটি চাপালে এই নতুন শিল্প পথে বসবে বলে সওয়াল করছিল সংশ্লিষ্ট সব সংস্থা এবং গোয়া, সিকিমের মতো রাজ্যগুলি। যুক্তি দেওয়া হচ্ছিল, এর সবটাই জুয়া বা ফাটকাবাজি নয়। এর মধ্যে দক্ষতাও জড়িয়ে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের অর্থ দফতরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য-সহ একাধিক রাজ্যের অর্থমন্ত্রী এ সব ক্ষেত্রে ২৮ শতাংশ হারেই জিএসটি চাপানোর পক্ষে সওয়াল

করেছিলেন। সেই দাবি মেনে অনলাইন গেমিং, ক্যাসিনো এবং ঘোড়দৌড়ে ২৮ শতাংশ হারে কর চাপানোর বিষয়ে জুলাই মাসে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছিল জিএসটি পরিষদ।

সেইমতো বিভিন্ন রাজ্যে জিএসটিআইনের সংশোধনী পাস করানো হয়। অর্থমন্ত্রী জানান, ১ অক্টোবর থেকেই নতুন হারে কার্যকর করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে। বিজেপি বিধায়ক অশোক লাহিড়ী এ রাজ্যে কেন বিলটি এতদিন আটকে ছিল তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। অভাবে অর্থমন্ত্রী জানান এ রাজ্যে রাজ্যপালের অনুমোদনের জন্য বিলটি আটকে থাকার কারণে এখানে বর্ধিত হারে কর চালু করা যায়নি। তবে এক্ষেত্রে নতুন আইন তৈরি হওয়ার পরে পয়লা অক্টোবরকে ভিত্তি তারিখ হিসেবে ধরে ওই সময় থেকেই লটারি,অনলাইন গেমস, ঘোড়দৌড়ে বর্ধিত হারে জিএসটি কার্যকর করা হবে। আলোচনা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে সংশোধনীটি বিধানসভায় গৃহীত হয়।