এই মুহূর্তে কলকাতা

করোনা সচেতনতা প্রতিযোগিতায় এগিয়ে থাকা পূজা কমিটি গুলিকেই বিশ্ব বাংলা শারদ সম্মান প্রদান করবে সরকার


কলকাতা , ১০ অক্টোবর:- রাজ্য সরকার আসন্ন শারদ উৎসবে করোনা সংক্রমণ সচেতনতা প্রতিযোগিতায় যে পুজো এগিয়ে থাকবে সেই পুজো কমিটিকে কোভিড সচেতন পুজো হিসাবে বিশ্ব বাংলা শারদ সম্মান প্রদান করবে। আজ কলকাতায় এক সাংবাদিক বৈঠকে তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন বলেন এছাড়াও কলকাতার পুজোতে সেরা ভাবনা, সেরা মণ্ডপসজ্জা, সেরা আলোকসজ্জা বিভাগেও সম্মান জানান হবে। বাকি বাইশটি জেলার ক্ষেত্রে সেরা পুজো, সেরা প্রতিমা, সেরা মণ্ডপ সজ্জা বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হবে। রাজ্যের বাইরের পুজোগুলির ক্ষেত্রে অনলাইনে আসা আবেদনের ভিত্তিতে পুরস্কৃত করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। এইজন্যে আজ থেকে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করা যাবে।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিটি জেলায় তিনটি সেরা কমিটিকে এই সেরা কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি সম্মান দেওয়া হবে। ওই তিনটি কমিটিকেই ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। প্রতিটি জেলায় তিনটি পুজো কমিটিকে সেরা পুজোর সম্মান দেওয়া হবে। সেরা পুজো সম্মানের পুরস্কার মূল্য ৫০ হাজার টাকা। একই সঙ্গে প্রতিটি জেলায় তিনটি কমিটিকে সেরা মণ্ডপ ও সেরা প্রতিমার সম্মান দেওয়া হবে। সেরা মণ্ডপের পুরস্কার মূল্য ৩০ হাজার এবং সেরা প্রতিমার পুরস্কার মূল্য ২০ হাজার টাকা। সকলকেই স্মারক দেওয়া হবে।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা সংক্রমণ এখনও চলছে। তাই প্রতিটি পুজো কমিটিতে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত বিশেষ ব্যবস্থা নিতে হবে। দর্শনার্থীদেরও সচেতন করতে হবে। যাতে সকলেই মাস্ক পরে মণ্ডপে ঢোকেন। সেরা কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি সম্মানে করোনা নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত সমস্ত বিষয়গুলি দেখা হবে। জেলার যে তিনটি পুজো কমিটি সবচেয়ে ভালো এই ব্যবস্থা ও প্রচার করবে, তাদের পুরস্কৃত করা হবে। অতিমারির জন্য এবার সবারই বাজেট কম। বহু জায়গায় থিম বাতিল। মুখ্যমন্ত্রীর ৫০ হাজার টাকার অনুদানের ঘোষণায় অনেক পুজো কমিটি বুকে বল পেয়েছে। এই পুরস্কার মূল্যে তারা আরও আশার আলো দেখছেন। জেলা ও মহকুমা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর থেকে এই শারদ সম্মানের ফর্ম পাওয়া যাচ্ছে।

করোনার জন্য www.wb.gov.in এবং www.egiyebangla.gov.in এই দু’টি ওয়েবসাইট থেকেও ফর্ম ডাউনলোড করা যাবে। ফর্ম ফিলআপ করে জেলা ও মহকুমা দপ্তরে জমা দেওয়া যাবে। অথবা সংশ্লিষ্ট জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরে ই-মেলও করা যাবে। ফর্ম জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৬ অক্টোবর। ওইদিন বিকেল ৫টা পর্যন্ত জমা দেওয়া হবে। পূর্ব বর্ধমানের জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক কুশল চক্রবর্তী বলেন, সেরা কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি সম্মানটি এবার নতুন যুক্ত হয়েছে। আমরা সব পুজো কমিটিগুলিকে জানাচ্ছি। অনলাইন ও অফ লাইন দু’টোতেই ফর্ম তোলা ও জমা দেওয়া যাবে।