এই মুহূর্তে জেলা

বালির কল্যাণেশ্বর শিব মন্দিরে শিবরাত্রিতে পুজোয় অংশ নিলেন বেলুড় মঠের সন্ন্যাসীরা।


হাওড়া, ৮ মার্চ:- প্রতি বছরের ন্যায় মহা শিবরাত্রিতে বালির কল্যাণেশ্বর শিব মন্দিরে পূজা সারলেন বেলুড় মঠের সন্ন্যাসী মহারাজরা। প্রায় ৪০০ বছরের ইতিহাস বহনকারী বালির এই কল্যাণেশ্বর বাবার অবস্থান বালির কল্যাণেশ্বরতলায়। কথিত আছে, ঠাকুর শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণদেব বলেছিলেন যে এই কল্যাণেশ্বর শিবলিঙ্গ জ্যান্ত শিবেরই প্রতীক। বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষ সেই রীতি মেনে চলেছেন। এদিন শুক্রবার রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ মহারাজ এবং মঠের বহু সন্ন্যাসী শিবরাত্রিতে শিবের আরাধনা করেন এখানে।

জানা যায়, পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে শিবচতুর্দশীতে বেলপাতা দিলে এবং শিবচতুর্দশী পালন করলে স্বর্গলাভ হয়। বেলুড় মঠেও শিবচতুর্দশী পালন হয়। প্রসঙ্গত, স্বামীজী নিজেই শিবাবতার ছিলেন। উল্লেখ্য, এদিন বালির কল্যাণেশ্বর মন্দিরে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্প ও উদ্যান পালন দপ্তরের মন্ত্রী অরূপ রায়, প্রাক্তন জনপ্রতিনিধি পল্টু বণিক, প্রবীর রায়চৌধুরী প্রমুখ।