এই মুহূর্তে কলকাতা

পঞ্চায়েত দপ্তরের উদ্যোগে এবার দুয়ারে হাজির হবে জিভে জল আনা খাবার।


কলকাতা, ১৯ মার্চ:- বনমুরগি মাংস দিয়ে করা বিরিয়ানি কিংবা পাহাড়ি খাসির মাংস।দোলের পর থেকেই বাড়ি বাড়ি রান্না করা খাবার পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে পঞ্চায়েত দফতর। মানুষের কাছে একটু অন্য রকমের খাবার পৌঁছে দিতেই এই পরিকল্পনা। পঞ্চায়েত দফতরের নির্দিষ্ট নম্বরে ফোন বা হোয়াটসঅ্যাপ করলেই আপনার বাড়ির দরজায় হাজির হয়ে যাবে পছন্দসই বিরিয়ানি। রাজ্য পঞ্চায়েত দফতরের বিশেষ সচিব তথা না। সুসংহত এলাকা উন্নয়ন পর্ষদ বা সিএডিসির কর্তা সৌম্যজিৎ দাস এই বিষয়ে জানিয়েছেন, ‘চাইলেই সব বিরিয়ানির সঙ্গে ঝাড়গ্রামের বনমুরগী বা পাহাড়ি খাসি পাওয়া যাবে সিএডিসি’র উদ্যোগে দুয়ারে বিরিয়ানি পরিষেবায়। সঙ্গে মিলবে ঝাড়গ্রামের বনমুরগী ও পাহাড়ি খাসির মাংস।

রাজ্যের স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মা-বোনেরা নিজেদের হাতে তৈরি মশলা দিয়ে এই রান্না করবেন। কলকাতা ও শহরতলির বিস্তীর্ণ অঞ্চলে এই পরিষেবা মিলবে। ১৯ এবং ২০ মার্চ মধ্যাহ্নভোজ এবং রাতের খাবার দুইয়েই মিলবে এই স্পেশাল চিকেন ও মাটন বিরিয়ানি। এছাড়া থাকবে ঘরোয়া বাঙালি খাবারও। তাতে পাওয়া যাবে মাছের মাথা দেওয়া সোনা মুগের ডাল, দেরাদুন চালের ভাত, বনমুরগি বা পাহাড়ি খাসির মাংসের ঝাল। দামও সাধ্যের মধ্যে। ১৩০ থেকে ৩৫০ টাকার মধ্যেই থাকবে দাম। ১৩০ টাকায় মিলবে চিকেন বিরিয়ানি। মাটন বিরিয়ানি ১৭৫ টাকা। ঝাড়গ্রামের বনমুরগির প্ল্যাটার ২৫০ টাকা এবং পাহাড়ি খাসির স্পেশাল ডিসের জন্য দিতে হবে ৩৫০ টাকা। ১৯ এবং ২০ মার্চ ৯১৬৩১২৩৫৫৬ এবং ৬২৯০২২৫৮৫৯ নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপ করে দিলেই দুয়ারে হাজির হয়ে যাবে জিভে জল আনা খাবার।