এই মুহূর্তে কলকাতা

বিধানসভায় তৃণমূল বিধায়কের বাবা তুলে অশ্লীল আক্রমণ বিরোধী দলনেতার।


কলকাতা, ১০ ফেব্রুয়ারি:- বাজেট বক্তৃতা চলাকালীন বিধানসভার ভিতরে নজিরবিহীন কথা কাটাকাটি। তৃণমূল বিধায়কের বাবা তুলে অশ্লীল আক্রমণ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। শনিবার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিধানসভার অন্তরে সাময়িক উত্তেজনার পরিস্থিতিও তৈরি হয়। পরে অবশ্য অধ্যক্ষ গোটা বিষয়টিকে সামলে নেন। তবে এই ধরনের ঘটনায় অসন্তুষ্টও হয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে, তিনি এও জানিয়েছেন, দিন-দিন বিধানসভার অন্দরে বিধায়কদের আচরণ নানা ধরনের প্রশ্নের জন্ম দিচ্ছে। ঘটনার সূত্রপাত বাজেট নিয়ে আলোচনায় শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্যের সময়। এদিন তিনি বক্তব্য রাখতে গিয়ে অভিযোগ করেন, রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় বরাদ্দ সঠিকভাবে ব্যবহার করছে না। এই অভিযোগ বিশ্লেষণ করতে গিয়ে শুভেন্দু বলেন, পঞ্চাদশ অর্থ কমিশনের বরাদ্দ থেকে বিদ্যুতের বিল মেটাচ্ছে রাজ্য সরকার। তিনি যখন এই অভিযোগ করছিলেন তখন ট্রেজারি বেঞ্চের তরফ থেকে তারকেশ্বরের বিধায়ক রমেন্দু সিংহ ‘চোর’ ‘চোর’ স্লোগান দিতে থাকেন।

বক্তব্য থামিয়ে শুভেন্দু অধিকারী তাঁর উদ্দেশ্যে বলেন, “তোর বাপ।” এরপরই নিজের সিট থেকে উঠে শুভেন্দু অধিকারীর দিকে তেড়ে যান রমেন্দু সিংহ। তবে তাঁকে থামিয়ে দেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। পরে তারকেশ্বরের বিধায়ক জানান, শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্য রাখার সময় তিনি তাঁকে নয়, কেন্দ্রীয় সরকারকে চোর বলেছিলেন। তার পালটা শুভেন্দু অধিকারীর আক্রমণে তিনি অত্যন্ত আহত হয়েছেন। তিনি বিষয়টি অধ্যক্ষের নজরেও এনেছেন। যদিও এই ঘটনা নিয়ে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী জানান, তাঁকে চোর বলায় পালটা বাবা তুলেছেন তিনি। এদিন অধ্যক্ষ বলেন, “এই ধরনের ঘটনা কখনওই কাম্য নয়। আমি সকলকে সংযত হওয়ার জন্য আবেদন করব।” একই সঙ্গে তিনি বলেন, “অধিবেশনের পর তারকেশ্বরের বিধায়ক আমার কাছে এসেছিলেন। তিনি জানিয়েছেন, বিরোধী দলনেতা বাবা তুলে আক্রমণ করার জেরে সাময়িকভাবে উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। এই আচরণের জন্য তিনি দুঃখিত।”