এই মুহূর্তে কলকাতা

আন্দোলনকারী কুস্তিগীরদের পাশে থাকার বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।


কলকাতা, ৩০ মে:- যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত কুস্তি ফেডারেশনের প্রধান, বিজেপি আশ্রিত ব্রিজভূষণ স্মরণ সিংয়ের অপসারন চেয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন দেশের তাবর পদকজয়ী কুস্তিগীরেরা। কেন্দ্রীয় সরকারের বর্বরোচিত হামলার পরেও মাটি কামড়ে আন্দোলনে রয়েছেন তাঁরা। এবার তাঁদের পাশে থাকার কথা ঘোষণা করলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। পাশাপাশি কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ওই কুস্তিগীরদের আন্দোলন ভাঙতে যেভাবে হামলা নিগ্রহ চালিয়েছে তার কঠোর নিন্দা করেছেন তিনি। আন্দোলনরত কুস্তিগীরদের সমর্থনে ও তাদের ওপর হামলা নিন্দা করে বুধবার কলকাতায় মিছিল আয়োজনের কথা ও মুখ্যমন্ত্রী এদিন ঘোষণা করেছেন।

ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের নেতৃত্বে ক্রীড়াবিদ ও খেলোয়াড়দের সঙ্গে বুধবার কলকাতার হাজরা মোড় থেকে রবীন্দ্র সরোবর পর্যন্ত এই মিছিল হবে বলে জানান তিনি মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলন করে আরও একবার দিল্লিতে আন্দোলনরত কুস্তিগীরদের পাশে থাকার কথা জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের আদেশ স্বত্বেও কুস্তিগীরদের নিগ্রহ, চরম অত্যাচার করা হয়েছে। পদকজয়ী কুস্তিগীরদের যেভাবে হেনস্থা করা হয়েছে তাতে দেশের সম্মান ভূলুণ্ঠিত। আজ দুপুরে ওদের সঙ্গে কথা হয়েছে। ওদের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছি। পদক ওরা নিজেদের প্রয়াসে জিতেছেন। তাই আবেদন জানিয়েছি যেন পদক বিসর্জন না দেন।

আন্দোলনরত কুস্তিগীরদের সমর্থন জানাতে আগামী কাল কলাতায় ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব দের মিছিল আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছি ক্রীড়ামন্ত্রীকে।’ প্রসঙ্গত যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত রেসলার ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ার প্রধান তথা বিজেপি সাংসদ ব্রিজভূষণ শরণ সিং এর শাস্তির দাবিতে দিল্লিতে এক মাসের বেশি সময় ধরে অবস্থান আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন অলিম্পিকে পদকজয়ী দেশের সেরা কুস্তিগীররা। কিন্তু মোদি সরকারের তাঁদের কথায় কর্ণপাত না করায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কুস্তিগীররা নিজেদের পদক হরিদ্বারে গঙ্গায় বিসর্জন দেবার কথা ঘোষণা করেছেন। এই প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘তাঁরা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেটা তাঁদের। তবে আমরা কুস্তিগীরদের পাশে রয়েছি।’