এই মুহূর্তে জেলা

রূপশ্রী প্রকল্পের মাধ্যমে ছাদনাতলায় ভদ্রেশ্বরের কন্যা।


প্রদীপ বসু, ২৭ জানুয়ারি:- মেয়ে গীতার বিয়ের জন্য রুপশ্রী প্রকল্পের টাকা পেতে চন্দননগর মহাকুমা শাসকের অফিসে আবেদন করেছিল ভদ্রেশ্বর সি এম ষ্ট্রীটের বাসিন্দা সরস্বতী বেহেরা। স্বামী মারা গেছে আগেই। মেয়ের বিয়ে কিভাবে দেবে চিন্তায় পড়ে গিয়েছিল বেহেরা পরিবার। অবশেষে এই সমস্যার সমাধান হয়ে গেল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের রুপশ্রী প্রকল্পের পরিষেবা পেয়ে। শুক্রবার ভদ্রেশ্বর প্রাচীন শিব মন্দিরে এই বিয়ের অনুষ্ঠানে ছেলে মেয়ের বাড়ির লোকজন হাজির হয়। উড়িষ্যা থেকে প্রমোদ নায়েক বিয়ে করতে আসে। বিয়ের অনুষ্ঠানের মাঝে মন্দিরে উপস্থিত হয় চন্দননগর মহাকুমা শাসকের প্রতিনিধি।

তার কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। রুপশ্রী থেকে টাকা পাওয়া যাবে শুনে খুশি মেয়ের বাড়ির লোকজন। এছাড়া ভদ্রেশ্বর পৌরসভা ও সি আই সি প্রকাশ গোস্বামী ব্যক্তিগত উদ্যোগে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। এ প্রসঙ্গে ভদ্রেশ্বর ছ নম্বর ওয়ার্ড এর কাউন্সিলর সবিতা বেহেরা বলেন রুপশ্রী প্রকল্প থেকে অনেক গরিব মেয়েদের বিয়ে হচ্ছে। এটা তারই এক দৃষ্টান্ত। অন্যদিকে বিজেপি নেত্রী বেবি তেওয়ারি জানান এ ব্যাপারে কোনো রাজনৈতিক মন্তব্য আমি করব না। সে যে শ্রী হোকনা কেন ছেলে মেয়ের বিয়ে মানে উভয়ের মধ্যে সমন্বয় গড়ে ওঠে। বিয়ে শুভ হোক।আনন্দময় হোক।