এই মুহূর্তে কলকাতা

রাজ্যপাল-উপাচার্য বৈঠক।


কলকাতা, ১৭ জানুয়ারি:- রাজভবনে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উপাচার্য এবং শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আজ বৈঠক করেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। রাজভবন থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথাবার্তার সময় এই বৈঠককে ঐতিহাসিক আখ্যা দেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। এখন থেকে রাজভবন, নবান্ন এবং বিকাশ ভবন একসঙ্গে কাজ করবে বলে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন। ব্রাত্য বলেন, এতদিন পর্যন্ত যা বিতর্ক ছিল এখন তা অতীত। আর কোনও বিরোধ নয়, এখন সবপক্ষ সমন্বয় রেখে কাজ করবে। শিক্ষা মন্ত্রীর কথায়, রাজ্যপাল সব উপাচার্যের সঙ্গে আলাদাভাবে কথা বলেছেন। শিক্ষা দফতর কী কী কাজ করেছে, আগামী দিনে কী কী পরিকল্পনা রয়েছে, বৈঠকে তার প্রেজেন্টেশন দেওয়া হয়েছে। আচার্য তা খুঁটিয়ে দেখেছেন এবং মূল্যবান পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানান ব্রাত্য।

আজকের বৈঠককে ফলপ্রসূ আখ্যা দিয়েছেন রাজ্যপালও। তিনি বলেন, খুবই উৎসাহজনক, অনুপ্রেরণাদায়ক আলোচনা হয়েছে। উপাচার্যেরা বেশ কিছু অসাধারণ পরামর্শ দিয়েছেন। সেগুলি নিয়েই ভাবনাচিন্তা করতে হবে। নতুন বাংলা গড়ে উঠবে, যে বাংলা দেশ তথা বিশ্বকে পথ দেখাবে বলে মন্তব্য করেন আনন্দ বোস। রাজ্যপাল আরও বলেন, শিক্ষা সবচেয়ে শক্তিশালী হাতিয়ার এবং সমাজ পরিবর্তনের জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জগদীপ ধনখড় রাজ্যপাল থাকার সময় দুবার সব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের বৈঠক ডেকেছিলেন। কিন্তু কোনও উপাচার্যই বৈঠকে যাননি। মঙ্গলবার নতুন রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠকের ফলে রাজভবন ও রাজ্য সরকারের মধ্যে সংঘাতের অবসান ঘটল। মঙ্গলবার রাজ্যপালকে বার বার ‘আচার্য’ বলে সম্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য করে বিধানসভায় একটি বিল আনা হয়েছিল। এখন কি এই বিলে পরিবর্তন আনা হবে? এই প্রশ্নের জবাবে ব্রাত্য বসু বলেন, রাজ্যপাল নন, তাঁরা আচার্যের সঙ্গে কথা বলতে রাজভবনে গিয়েছিলেন। বিধানসভার বিল নিয়ে বিধানসভাতেই কথা হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।