এই মুহূর্তে দেশ

মেহনত কি আগে দুনিয়া ঝুকতা হ্যায়, “আশ্চর্য রানার” প্রদীপ!


সোজাসাপটা ডেক্স, ২২ মার্চ:- টানা কয়েকমাস ধরে রাতের অন্ধকারে পিঠে সংসারের ভার নিয়ে দৌড়ে চলেছিলেন উত্তরাখন্ডের কিশোর। সবেমাত্র সাবালকে পা দেওয়া বছর ১৯-এর কিশোরের দৌড় আজ ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সৌজন্যে সাংবাদিক তথা চিত্র পরিচালক বিনোদ কাপড়া। দৌড়তে দৌড়তে বনোদবাবুকে তাঁর কঠিন জীবন কাহিনীর কথা শুনিয়েছেন উত্তরাখন্ডের আলমোড়া জেলার কিশোর প্রদীপ মেহরা। প্রদীপের মা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। দাদা নাইট ডিউটি করেন। প্রদীপ নিজে ম্যাকডোনাল্ডসের বপনীতে কাজ করেন। প্রতিদিন রাত ১১টার পর সেই বিপনী তেকে দৌড়তে দৌড়তেই ১০কিমি পথ পাড়ি দিয়ে বাড়ি ফেরেন।

সাংবাদিক বিনোদ নিজের গাড়িতে চেপে যাওয়ার সময় “রানার প্রদীপে”র ভিডিও করেন। সেই ভিডিও চলাকালীনই প্রদীপের সাথে বিনোদের কথা হয়। প্রদীপ জানায় তাঁর ইচ্ছা ভারতীয় সেনাবাহিনীতে চাকরি করা। কিন্তু কাজের চাপে শারিরীক সক্ষমতার জন্য মাঠে যাওয়া হয়না। তাই প্রতিদিন রাতে ১০কিমি দৌড়েই বাড়ি ফেরে প্রদীপ। বাড়ি ফিরে রান্না করে সে। পরের দিন ভোরে উঠে আবার সংসারের কাজ করে কাজে বেড়িয়ে যায় প্রদীপ। এই ভিডিওই এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় সুপার ভাইরাল। কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের ট্যুইট যিনি চেষ্টা করে যান, তিনি হারেন না। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রী থেকে বিরোধী নেতৃত্ব সকলেরই প্রশংসা কুড়িয়েছেন প্রদীপ। আর যাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া সরগরম ভিডিওতে নিজের জীবন নিয়ে সেই প্রদীপের ব্যাখ্যা “মেহনত কি আগে দুনিয়া ঝুকতা হ্যায়”!