এই মুহূর্তে জেলা

এবার জলের প্রাণী বাঁচাতে অভিযান শুরু হলো ডলফিন দিবসে।


সুদীপ দাস , ৫ অক্টোবর:- আজ বিশ্ব ডলফিন দিবস, শুধু ডলফিন নয়, জলে থাকা অন্য প্রাণীদেরকেও বাঁচানোর প্রচার শুরু হলো, গঙ্গা বক্ষে, ডলফিন দিবসে। ওয়াইল্ড লাইফ ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার তরফে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে অনেকদিন আগেই। সারা দেশের ৫টি জায়গা বেছে নেওয়া হয়েছে, গঙ্গা দূষণ রোধ এবং জলজ প্রাণী বাঁচানোর জন্য। উত্তর প্রদেশের ৩টি জায়গা, বিহারের ১টি জায়গা এবং এই রাজ্যে ব্যান্ডেল চাঁদনী ঘাট থেকে লাগাতার প্রচার চালাবে ৫ মাঝি। যাদেরকে ৬ মাস আগেই অন্য রাজ্যে নিয়ে গিয়ে ট্রেনিং দেওয়া হয়েছিল, কিভাবে জলের প্রাণীকে বাঁচাতে হয়। ব্যান্ডেল জেলে পাড়ার এই মাঝি সম্প্রদায়ের ৫ জন জেলে যাদের এখন থেকে পরিচয় ‘গঙ্গা-প্রহরী’ হিসাবে, তারা সেই ট্রেনিংয়ে যোগদান করেছিল, তার একটিই কারণ, ১৪ পুরুষ ধরে জীবন জীবিকা বেঁচে আছে এই গঙ্গাকে কেন্দ্র করেই।

আগে এই গঙ্গা বক্ষেই দেখা যেত প্রচুর ডলফিন। এখন তার সংখ্যা খুবই কম। জলের অন্য প্রাণীদেরও ক্রমশই সংখ্যা কমছে। জলে থাকা পক্ষীকূলও প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে। ৫টি সুদৃশ্য নৌকা, যার গায়ে জলজ প্রাণীদের ছবি আঁকা রয়েছে, সঙ্গে রয়েছে একটি ছোট লঞ্চ। উপস্থিত হয়েছে ট্রেনিং প্রাপ্ত ৫ জেলে। আজ চাঁদনী ঘাট থেকে ইকো ট্যুরিজমের মধ্যে দিয়ে সেই প্রচার অভিযানের সূচনা করা হলো। গঙ্গা বক্ষেই তারা ঘুরে ঘুরে প্রচার চালাবে, মানুষের মধ্যে।

এই এলাকার মূলত পর্যটন কেন্দ্র হুগলী ইমামাবারা থেকে ব্যান্ডেল চার্চ, এই জলপথেই একদিকে যেমন চলবে প্রচার যাতে মানুষ গঙ্গা দূষণ থেকে বিরত থাকে, তেমনই ইকো ট্যুরিজমের মধ্যে দিয়ে খুলে যাবে উপার্জনের নতুন দিশারী। এখানে আশা পর্যটকদের যেমন গঙ্গা বক্ষে সফরের পরিষেবা দেওয়া হবে, তার পাশাপাশি সচেতন করা হবে, জলজীবন সংরক্ষণ ও গঙ্গা দূষণ রোধের বিষয়ে, যাতে তারা এই সচেতনতার প্রচার ছড়িয়ে দিতে পারেন অন্যদের মধ্যে। দূষণের ফলে হারিয়ে যাচ্ছে ‘জল-জীবন’, সেই বিষয়েই তারা লাগাতার ভাবে সচেতনতার প্রচার চালাবে আজ থেকেই। কেন্দ্রীয় সরকারের ‘নমামী গঙ্গে’ ও ওয়াইল্ড লাইফ ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে এই অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করা হয় ব্যান্ডেল চাঁদনী ঘাটে।