এই মুহূর্তে জেলা

বিবাহ বর্হিভুত সম্পর্কের জের, স্ত্রীর প্রেমিকের কাটারির কোপে গুরুতর জখম স্বামী।


হুগলি , ২৬ আগস্ট:- বিবাহ বর্হিভুত সম্পর্কের জের, স্ত্রীর প্রেমিকের কাটারির কোপে স্বামী গুরুতর জখম অবস্থায় চিকিৎসাধীন কোলকাতার হাসপাতালে।মঙ্গলবার রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে হুগলীর মগরা থানার অন্তর্গত মনসাতলা বৈকন্ঠপুরে। চিকিৎসাধীন ব্যাক্তির নাম অভিজিৎ সরকার (৩৬)। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পেশায় রাজমিস্ত্রী অভিজিতের সাথে বছর দশেক আগে বিবাহ হয় হুগলীর মগরা থানার অন্তর্গত বৈকন্ঠপুরের বাসিন্দা স্বপ্নার সাথে। বিয়ের পর থেকে স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ির কাছেই ভাড়া থাকতেন অভিজিৎ। তাঁদের ৮ বছরের একটি পুত্র ও ৫ বছরের একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে।

কিন্তু বিয়ের বছর দুয়েক পর থেকেই স্বপ্নার সাথে হুগলীর বলাগর থানার জিরাট এলাকার বাসিন্দা রবীন বৈদ্যের সাথে প্রেমের সম্পর্ক হয়। সম্প্রতি অবৈধ সেই সম্পর্ক ক্রমশই মাথাচাড়া দিচ্ছিলো। মঙ্গলবার রাতে কাজ থেকে বাড়িতে ফেরে অভিজিৎ। ঘরে ঢুকতেই তিনি স্ত্রীর সাথে দেখতে পান রবীনকে। এরপর তাঁদের মধ্যে শুরু হয় বচসা। হঠাৎই ঘরে থাকা একটি কাটারি নিয়ে অভিজিতের উপরে ঝাঁপিয়ে পরে রবীন। অভিজিতের ঘারে ও হাতে কাটারির ঘা দিয়ে নিজের সাইকেল নিয়ে চম্পট দেয় রবীন। অভিজিতের চিৎকারে এলাকাবাসীরা তাঁকে নিয়ে প্রথমে মগরা গ্রামীন হাসপাতাল এবং পরে কোলকাতায় স্থানান্তর করে। খবর পেয়ে এদিন রাতেই পুলিশ স্বপ্না, রবীন ও স্বপ্নার মা যুথীকা সর্দারকে গ্রেপ্তার করে। আজ তিনজনকেই চুঁচুড়া আদালতে তোলা হয়।