এই মুহূর্তে জেলা

লোকসভার ভোটের আগেই সিএএ লাগু – শান্তনু ঠাকুর।


হুগলি, ১৪ জানুয়ারি:- আগামী একশ বছর পর বিজেপি সরকার থাকবে না, কিন্তু সিএএ লাগু হলে তা বদল করতে পারবে না যে সরকারই থাকুক, লোকসভার আগে সিএএ লাগু হবে, কোন্নগরে বললেন, বিজেপি সাংসদ জাহাজ প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর। ৩৭০ রদ এর পাশাপাশি আমাদের সরকার আরও একটা বড় সিন্ধান্ত নিয়ে সমস্যার সমাধান করেছে। বাংলাদেশ পাকিস্তান আফগানিস্তান থেকে আগত মানুষদের নাগরিকত্ব দিতে আইন প্রনয়ন করেছে। এটা একটু ভেঙে বলা প্রয়োজন। দেশ ভাগ হয়েছিল একটা মুহুর্তের সিদ্ধান্তে কিছু নেতার মতে জনগনের ভোট নিয়ে হয়নি। তাই একটা বড় সমস্যা তৈরী হয়েছে যার সমাধান হয়নি। পূর্ব পাকিস্তান থেকে আসা পরে বাংলাদের স্বাধীন হবার পর ওপার বাংলার সংখ্যা লঘু মানুষ যারা এদেশে এসেছেন তাদের জীবন দূর্বিষহ হয়েছে। তাদের যদি নাগরিকত্ব দিতে চায় দেশের সরকার তা কি খুব ভুল। সিএএ যাতে করতে না পারে এরাজ্যের সরকার কি ভাবে বিরুদ্ধতা করেছে। ইডিকে পিটিয়েছে তাই রাজ্য সরকারেরও আর ক্ষমতা নেই শাহজাহানকে সেল্টার দেবে।

হয়ত বা ও বাংলাদেশ মায়ানমার পালিয়ে গেছে সেখানে রহিঙ্গা যোগার করছে। একজন বলেছেন বর্ডারের নিরাপত্তা দেখে বিএসএফ। আমাদের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী যখন ফেন্সিং এর জন্য জমি দিতে বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী এড়িয়ে গেছেন। বর্ডারের ফেন্সিং টা হচ্ছে না কেন। রাজ্য সরকার যদি জমি না দেয়। রাজ্য সরকার রহিঙ্গাদের ঢোকানোর জন্য এই সব জায়গা ফাঁকা রেখেছে। আর তার লিজ নিয়েছে এই সব নেতারা। বিহারের নীতিশ কুমার বিজেপির সঙ্গে সরকার চালিয়েছিল তার সুফল পেয়ে বিহারে এত উন্নয়ন হচ্ছে। সিবিআই ইডি যদি তৃনমূলের কাউকে গ্রেফতার করে ওরা এসএসকেএম এ ভর্তি হতে চায় আসলে দেখাতে চায় খুব অসুস্থ। কিন্তু বাংলার বাইরে যেকোনো হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা করালে দেখবেন ওদের হার্ট পালস্ সব ঠিক আছে।এসএসকেএম সরকারি হাসপাতাল সেখানকার কয়েকজন চিকিৎসককেও ইডি বলেছে তদন্ত করব।