এই মুহূর্তে জেলা

১৫ দিনের জন্য কাজ হারালেন বাঁশবেড়িয়ার গ্যাঞ্জেস জুট মিলের সিংহভাগ শ্রমিক।


হুগলি, ৯ ডিসেম্বর:- হুগলি জেলায় বেশ কয়েকটি জুট মিল রয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম বাঁশবেড়িয়ার এই গ্যাঞ্জেস জুট মিল। এখানে এই কারখানাটি খাতায় কলমে দুটি অংশে বিভক্ত। সেই দুটো অংশে প্রায় ৬০০০ এর বেশি শ্রমিক কাজ করেন। গ্যাঞ্জেস ম্যানুফ্যাকচারিং প্রাইভেট লিমিটেড এ সিংহভাগ শ্রমিকই অস্থায়ী। সম্প্রতি মিল কর্তৃপক্ষ মালের বরাত নেই এমনকি গোডাউনে উৎপাদিত সামগ্রী মজুত হয়ে গেছে। এই কারণ দেখিয়েই ওই দুটি অংশে ৯ থেকে ২৩ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত উৎপাদন প্রায় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যার ফলে দুটি মিলের সিংহভাগ শ্রমিক এই ১৫ দিনের জন্য কাজ হারালেন। এর ফলে চরম সমস্যার মধ্যে পড়েছেন মিল শ্রমিকরা। শ্রমিকরা জানান এই মিল বন্ধ হওয়া এখন আমরা চরম সমস্যার মধ্যে পড়েছি।

এখন বাধ্য হয়ে এই কদিন অন্য কিছু কাজ খুঁজতে হবে। পাশাপাশি তারা চিন্তায় রয়েছেন ২৪ তারিখ থেকে পুনরায় মিল খুলবে কিনা। এই মিলের সিআইটিইউ শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়‌। তারা প্রথম থেকেই এইভাবে মিল বন্ধ করার বিরোধিতা করেছিলেন। মিলের সমস্ত ইউনিয়নদেরকে নিয়ে বেশ কয়েকবার বৈঠকও হয়েছিল। শেষ বৈঠকে মিল কর্তৃপক্ষ জানিয়ে ছিল কয়েকদিনের জন্য মিল বন্ধ রাখবে। এখন আমরা দেখছি ২৪ তারিখ থেকে মিল কর্তৃপক্ষের কথা মত মিল খোলে কিনা। আর না হলে আমরা ডিএলসির দ্বারস্থ হবো। অন্যদিকে বাঁশবেড়িয়া পৌরসভার পৌর প্রধান আদিত্য নিয়োগী জানান সমস্ত ইউনিয়ন গুলির সঙ্গে বসে আলোচনা করেই মিল বন্ধ করেছে। পাশাপাশি তিনি এও বলেন এই উৎপাদিত সামগ্রী মজুদ হয়ে যাওয়ার পিছনে কেন্দ্রীয় সরকারকেই দোষারোপ করলেন তিনি।