এই মুহূর্তে কলকাতা

বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালিত হচ্ছে স্বামীজীর ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী।


কলকাতা, ১২ জানুয়ারি:- স্বামী বিবেকানন্দের ১৬০ তম জন্মবার্ষিকী আজ জাতীয় যুব দিবস হিসেবে সারা দেশের পাশাপাশি এ রাজ্যেও নানা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালিত হচ্ছে। বিভিন্ন সরকারি- বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, সংস্থা ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বীর সন্ন্যাসীকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছে। রামকৃষ্ণ মিশনের উদ্যোগে স্বামীজীর জন্মভিটে উত্তর কলকাতা সিমলা স্ট্রিটে দিনভর নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সকালে প্রভাত ফেরির মাধ্যমে কর্মসূচির সূচনা হয়। রাজ্যের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী শশী পাঁজা ওই প্রভাত ফেরির সূচনা করেন। স্বামীজীর বাণী ও উপদেশ সম্বলিত প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন নিয়ে স্কুল পড়ুয়া শিক্ষক ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যদের পাশাপাশি এনসিসি ক্যাডেটরাও পদযাত্রায় শামিল হন। করোনা পরিস্থিতিতে জেরে গত কয়েক বছর স্বামীজির সিমলা স্ট্রিটের বাড়ির ভিতরে ভক্তদের প্রবেশ নিষেধ ছিল। তাঁদের জন্য বাইরেই শ্রদ্ধা জানানোর ব্যবস্থা করা হত। আপাতত অবশ্য বদলেছে পরিস্থিতি। ফের আগের মতো ভক্তরা বাড়ির সমস্ত জায়গা ঘুরে দেখার সুযোগ পাচ্ছেন। স্বামীজির স্মৃতি বিজড়িত বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখার সুযোগও মিলছে ভক্তদের।

একই ছবি ধরা পড়েছে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের বিভিন্ন কেন্দ্রেও। রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সারদাপীঠের সভাগৃহে সকালে প্রার্থনা ও ভক্তিগীতি দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। দেশাত্মবোধক গান, শারীরিক কসরত্‍, মার্শাল আর্ট, ছাড়াও বিভিন্ন সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও হয়। স্বামী বিবেকানন্দর জন্মদিন উপলক্ষ্যে রাজ্য সরকারের মূল অনুষ্ঠানটি হয় কলকাতার বিবেকানন্দ উদ্যানে। সেখানে স্বামীজীর মূর্তিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মন্ত্রিসভার সদস্য অরূপ রায়। রাজ্য সচিবালয় নবান্নে ও তাঁর ছবিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের তরফেও স্বামী বিবেকানন্দের জন্ম দিবস পালনে নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় স্বামীজীর বাড়িতে গিয়ে তার মূর্তিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন পালন উপলক্ষে বিজেপির পক্ষ থেকে আজ স্বামীজীর পৈতৃক বাড়িতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দলের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার সকালে স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এরপর স্বামীজীর পৈতৃক বাড়ি থেকে রেড রোড পর্যন্ত একটি ম্যারাথন দৌড়ের সূচনা করেন। রাজ্য সভাপতি নিজে এবং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এই ম্যারাথনে অংশ নেন। এরপর দুপুরে শ্রী মজুমদার কেষ্টপুর মোড় থেকে দক্ষিণপাড়া মোড় পর্যন্ত একটি পদযাত্রার সূচনা করেন।