এই মুহূর্তে জেলা

তৃণমূল কাউন্সিলরের ঘনিষ্ট ব্যক্তির মদতে নবগ্রামে বেআইনি ভাবে ইমারতি দ্রব্য রাস্তায় ফেলে চলছে আবাসন তৈরির কাজ


হুগলি , ১০ অক্টোবর:- কোন্নগর পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে নবগ্রাম এলাকায় রাস্তার উপর বেআইনি ভাবে ইমারতি দ্রব্য ফেলে রেখে আবাসন তৈরি করার অভিযোগ উঠলো।নবগ্রাম গার্লস স্কুল পাড়া নেতাজী স্পোর্টিং ক্লাবের পাশে তৈরি হচ্ছে একটি নতুন আবাসন। সেই আবাসন তৈরির সরঞ্জাম রাস্তার উপর রেখে কাজ করার অভিযোগ প্রমোটারের বিরুদ্ধে। কোন্নগরের প্রধান রাস্তা নৈটি রোডে জলের পাইপ লাইনের কাজ চলার কারণে নবগ্রাম ও কানাইপুরের ভিতরের রাস্তা ব্যবহার করতে হচ্ছে সমস্ত মানুষকে। কিন্তু নবগ্রাম অনুকূল ঠাকুরের মন্দিরের পিছনের প্রধান রাস্তার উপর আবাসন তৈরির সরঞ্জাম ফেলে রাখায় নিত্যদিন সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

কিভাবে বেআইনি ভাবে রাস্তার উপর আবাসন তৈরির সরঞ্জাম ফেলে কাজ চলছে সেই নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। নবগ্রাম অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অপূর্ব মজুমদার জানান এই বিষয়টি তিনি নিজে গিয়ে দেখেছেন। এছাড়া তিনি জানতে পেরেছেন সেখানে কোন্নগরের এক কাউন্সিলর ঘনিষ্ট ব্যক্তি এই কাজ করছে।তবে এই বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন অপূর্ব বাবু। তিনি আরো বলেন তৃণমূল দল কোনোভাবেই কোনো বেআইনি কাজে মদত দেবেনা ।অপরদিকে হুগলি জেলা বিজেপি যুব মোর্চার শ্রীরামপুরের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজেশ রজক অভিযোগ করেন কোন্নগরের নবগ্রামে তৃণমূলের মদতে এভাবে বহু বেআইনি আবাসন গড়ে উঠছে। তৃণমূলের মদত ছাড়া এভাবে কাজ করা সম্ভব নয়। রাস্তার উপর বেআইনি ভাবে ইমারতি দ্রব্য ফেলে কাজ করায় সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।