এই মুহূর্তে জেলা

চিকিৎসাধীন রোগীর গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা শালবনীতে।


পশ্চিম মেদিনীপুর , ২১ আগস্ট:- পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার লেভেল ফোর করোনা হাসপাতাল শালবনীতে ঘটে গেল এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনা । আজ (শুক্রবার) ভোররাতে ( আনুমানিক ২ টো -২.৩০ টা ) এক চিকিৎসাধীন রোগী গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করলেন । সূত্রের খবর অনুযায়ী , খড়্গপুর গ্রামীণের বছর ৪৫ এর এক ব্যক্তি গত ১২ ই আগস্ট করোনা নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন শালবনীতে । কিছুদিন চিকিৎসা চলার পরই , গতকাল গভীর রাতে (বা আজ ভোররাতে) , ওয়ার্ডের পাশে একটি ছোট কেবিনে ঢুকে , গলায় গামছা দিয়ে আত্মহত্যা করেন ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, খড়্গপুর গ্রামীণের সুলতানপুর গ্রামের বছর ৪৫ এর এই ব্যক্তির নাম গোপাল ঘোড়ই বলে জানা গেছে , স্থানীয় সূত্রে । আরো জানা গেছে , ওনার শরীরে নিচের অংশে (পায়ের দিকে) একটু সমস্যা ছিল (ক্রমেই পচন ধরছিল বলে জানা যায়) । এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা ছিল । সেইসব কারণেই আত্মহত্যার ঘটনা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে । শালবনী থানার পুলিশ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে বলে জানা গেছে । ঘটনাস্থলেও শীর্ষ আধিকারিক সহ বিশাল পুলিশবাহিনী পৌঁছেছে । তবে চিকিৎসারত এই রুগী কিভাবে সবার নজর এড়িয়ে আত্মহত্যা করলেন এনিয়ে কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।