এই মুহূর্তে জেলা

অমিত মালব্যর ট্যুইট প্রসঙ্গে সাংবাদিক বৈঠক চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের।


হুগলী, ১২ জানুয়ারি:- ডানকুনি থেকে গ্রেপ্তার হওয়া বিজেপি কর্মী ঋত্বিক পালকে নিয়ে টুইটার হ্যান্ডেইলে অমিত মালব্যর পোস্ট নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করলেন চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসিপি শ্রীরামপুর। গত রবিবার বিজেপি শ্রীরামপুর সাংগঠনিক জেলার পক্ষ থেকে ডানকুনি থেকে এক বাইক র‍্যালির আয়োজন করা হয়েছিল। তবে সেই বাইক র‍্যালির অনুমতি দেয়নি পুলিশ। রবিবার সেই বাইক রালিতে উপস্থিত হয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তিনি বিজেপি কর্মী সমর্থকদের নিয়ে বাইক রেলি শুরু করতেই পুলিশ তা আটকে দেয়। এরপরেই পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিও হয়। সেই ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে দুই বিজেপি কর্মীকে পুলিশ আটক করে প্রিজম ভ্যানে তোলে। পরে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা প্রিজম ভ্যান থেকে দুই বিজেপি কর্মীকে নামিয়ে নিয়ে দুর্গাপুর হাইওয়ে অবরোধ করে‌।

মঙ্গলবার ডানকুনি থানার পুলিশ ওই ঘটনায় ছয় বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করে শ্রীরামপুর আদালতে পেশ করলে তাদের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। ওই ৬ জনের মধ্যে ঋত্বিক পাল নামে এক বিজেপি কর্মী আদালত থেকে বেরোনোর সময় বলেছিলেন শাজাহানদের মতন মানুষকে গ্রেফতার করতে পারেনা কিন্তু একজন প্রাক্তন সেনা কর্মীকে গ্রেফতার করতে পারে এরা। এই প্রসঙ্গ নিয়েই বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের সহ পর্যবেক্ষক অমিত মালব্য আজ টুইটার হ্যান্ডেইলে তিনি একটি বক্তব্য পোস্ট করেন। এরপরেই চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসিপি শ্রীরামপুর ডঃ অরবিন্দ কুমার আনন্দ এক সাংবাদিক বৈঠক করেন চুঁচুড়ায়। সেখানে তিনি জানান রবিবারের ঘটনায় আমরা ছয় জন বিজেপি কর্মীকেই গ্রেপ্তার করেছি।