এই মুহূর্তে জেলা

লিলুয়ায় উদ্ধার নরকঙ্কাল। চাঞ্চল্য।


হাওড়া, ১৬ জানুয়ারি:- এবার হাওড়ার লিলুয়ায় উদ্ধার হলো নরকঙ্কাল। প্রায় মাস পাঁচেক যাবৎ ওই এলাকায় নিখোঁজ ছিলেন সিপিএমের প্রাক্তন পঞ্চায়েত সমিতির এক সদস্যা। শাঁখা-পলা দেখে এলাকার বাসিন্দাদের অনুমান উদ্ধার হওয়া কঙ্কালটি ওই নিখোঁজ মহিলারই। কঙ্কাল উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে লিলুয়ার ঝাউতলা এলাকায়। জানা গেছে, সোমবার দুপুরে স্থানীয় কিছু মানুষ গাছের কাঠ কাটতে গিয়ে ওই কঙ্কালটি দেখতে পান। তাঁদের অনুমান, এটি কোনও মহিলার কঙ্কাল। কারণ সেখানে শাঁখা এবং পলা ছিল। ওই এলাকার বাসিন্দা গীতা মালিক নামের এক মহিলা গত ২৪ আগস্ট থেকে নিখোঁজ ছিলেন। গীতাদেবী সিপিএমের তিনবারের প্রাক্তন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা ছিলেন। এলাকার মানুষের সন্দেহ উদ্ধার হওয়া কঙ্কালটি গীতাদেবীর।

যদিও কঙ্কালটি কার ফরেনসিক পরীক্ষার আগে তা বলা সম্ভব নয়। পুলিশ সেটি উদ্ধার করে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে। গীতাদেবীর ছেলে সুভাষ মালিক জানান, গত ২৪ আগস্ট তাঁর মা হঠাৎই বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যান। তাঁর মায়ের মাথার সমস্যা ছিল। তাঁরা নিখোঁজের পরদিন লিলুয়া থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেছিলেন। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করেও তাঁরা তাঁকে খুঁজে পাননি। যে জায়গা থেকে কঙ্কালটি উদ্ধার হয়েছে সেটি একটি পরিত্যক্ত জলা জায়গা। বছরের অর্ধেক সময় বিশেষত বর্ষার সময় কয়েক মাস ওই জলা জমি প্রায় এক কোমর জলে ডুবে থাকে। তাই ওখানে সাধারণ মানুষ বিশেষ যাননা। জল নামতে গাছ কাটতে গিয়েছিলেন এদিন পাড়ার কিছু মানুষ। তখনই তাঁরা ওই কঙ্কালটি দেখতে পান। লিলুয়া থানার পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে কঙ্কালটি পরীক্ষার জন্য নিয়ে যায়। তবে স্থানীয় মানুষের অভিযোগ এদের পরিবার ওই মহিলাকে শারীরিক নির্যাতন করতো। এলাকার মানুষের অভিযোগ পরিবারের লোকেরাই তাঁকে মারধর করে খুন করে এখানে ফেলে দিয়ে গেছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।