এই মুহূর্তে জেলা

বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের ভার্চুয়ালি সূচনা প্রধানমন্ত্রীর। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্য জয় শ্রীরাম স্লোগান ঘিরে অনুষ্ঠানে বিতর্ক।


হাওড়া, ৩০ ডিসেম্বর:- বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের শুভ সূচনা হলো। মাতৃবিয়োগের কারণে প্রধানমন্ত্রীর সফর বাতিল ঘোষণা করা হলেও ভার্চুয়ালি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি এর উদ্বোধন করেন। এদিনের অনুষ্ঠানের শুরুতেই তাল কাটে। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের পুনরাবৃত্তি হয় হাওড়া স্টেশনে। বন্দে ভারতের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেন উল্টো দিকে থাকা বিজেপির কর্মীরা। এই নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায়। বিজেপি কর্মীদের থামানোর চেষ্টা করেন স্বয়ং রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। জনগণকে শান্ত হতে আবেদন জানান সাংসদ সুভাষ সরকারও। যদিও বহু অনুরোধেও এদিন আর মঞ্চে উঠতে রাজি হননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি মঞ্চের নিচের আসনে গিয়ে বসেন। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে রাজ্যপাল এরপর মঞ্চে গিয়ে বসেন। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মঞ্চের নিচে থেকেই বক্তব্য রাখেন। প্রধানমন্ত্রীর মাতৃবিয়োগ নিয়ে সমবেদনা জানান মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন বেলা ১১-৪০ মিনিট নাগাদ ভার্চুয়ালি এই ট্রেনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রসঙ্গত, এদিনই ভোররাতে প্রয়াত হন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মা হীরাবেন। অসুস্থ হয়ে আমেদাবাদের হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সেখানেই ভোররাতে প্রয়াত হন তিনি। খবর পেয়েই প্রধানমন্ত্রী দিল্লি থেকে রওনা হন। গান্ধীনগরে হয় হীরাবেনের শেষকৃত্য। মায়ের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর আজকের বঙ্গসফর বাতিল করা হয়। তবে ভার্চুয়ালি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী আজ বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করেন। প্রসঙ্গত, এদিন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস সহ আরও অনেকগুলো প্রকল্পের ভার্চুয়াল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন হাওড়া স্টেশনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব, রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, শুভেন্দু অধিকারী, লকেট চট্টোপাধ্যায়, সুকান্ত মজুমদার, দিলীপ ঘোষ, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, জন বার্লা, নিশীথ প্রামাণিক সহ অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।